Sharing is caring!

বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে জাফলং (Jaflong Sylhet) খুবই উল্লেখযোগ্য স্থান, এটি প্রকৃতির কন্যা হিসেবে খ্যাত। বাংলাদেশের সিলেট জেলার দর্শনীয় ভ্রমণের স্থান গুলোর মধ্যে জাফলং সবার প্রিয়। ভারতের মেঘালয় সীমান্তবর্তী সিলেট জেলার গোয়াইনঘাট উপজেলায় অপরূপ সাজে সাজিয়ে আছে জাফলং। সিলেট জেলা থেকে দর্শনীয় স্থান জাফলং এর দূরত্ব প্রায় 62 কিলোমিটার। ঝুলন্ত ব্রিজ, ডাউকি ব্রিজ, পিয়াইন নদীর স্বচ্ছ পানি এবং উঁচু পাহাড় এর মেঘেদের খেলা জাফলং কে অপরুপ করে সাজিয়ে আছে। পর্যটন প্রেমিকেরা সারা বছরই জাফলংয়ে এসে থাকে, কারণ ঋতু বদল এর সাথে সাথে জাফলং এর রূপের ও প্রকাশ ঘটে।

কিভাবে জাফলং এ যাওয়া যাবে?

বাংলাদেশের চায়ের দেশ হিসেবে খ্যাত সিলেট জেলা, তাই জাফলং আসতে হলে ছেলেটি আসতে হবে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভ্রমণ প্রেমিরা নানান উপায় জাফলং আসতে পারে। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে সিলেটে আসা গেলেও আমি সহজ করে বোঝানোর জন্য ঢাকা কেই বেছে নেব। কারন সবার পরিচিত ঢাকা শহর এবং ঢাকা থেকে খুবই সহজে জাফলং এ আসা যায়। ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গা থেকে সিলেটের বাস পাওয়া যায়। যেমনঃ গাবতলী, ফকিরাপুল, সায়েদাবাদ, আব্দুল্লাহপুর ও মহাখালী বাস টার্মিনাল থেকে বাস পরিবহন পাওয়া যায়।

সিলেটে যাওয়ার জন্য এসি ও নন নন এসি বাস পাওয়া যায়। সেগুলোর মধ্য সৌদিয়া, গ্রীনলাইন, এস আলম, এনা ও শ্যামলী পরিবহন। তবে এনা পরিবহনের এসি বাস পাওয়া যায়। এসি ও নন এসি বাস গুলোর ভাড়া কিছু পরিবর্তন রয়েছে। নন এসি বাসের ভাড়া সাধারণত 400 থেকে 500 টাকা এবং এসি বাসের ভাড়া 800 টাকা থেকে 500 টাকার মধ্যে হবে। ঢাকা থেকে সিলেটে যেতে প্রায় ছয় ঘন্টা সময় লাগে, কারণ সিলেটের দূরত্ব প্রায় 240 কিলোমিটার। ঢাকার বিভিন্ন স্থান থেকে রাত, দুপুর, সকাল সব সময় সিলেটের বাস পাওয়া যায়।

ঢাকা থেকে সিলেটে ট্রেনে যাওয়ার উপায়?

আপনার জেলা শহর থেকে ঢাকার কমলাপুর স্টেশন অথবা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন এ আসতে হবে। এখান থেকে কালনী এক্সপ্রেস, উপবন এক্সপ্রেস, জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ও পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেন পাওয়া যায়। বাস এর থেকে ট্রেনে যেতে একটু সময় বেশি লাগে। সেক্ষেত্রে ট্রেনে করে সিলেটে যেতে প্রায় সাত থেকে আট ঘণ্টা সময় লাগবে। ট্রেনের আসন ভেদে জন প্রতি ভাড়া 280 টাকা থেকে বারোশো টাকা পর্যন্ত।

অতি দ্রুত সময়ে জাফলং যেতে চাইলে আকাশ পথ চেয়ে পথকে বেছে নিতে পারেন। শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমান প্রতিদিন সিলেটের উদ্দেশ্যে সেরে যায়। ইউ এস বাংলা এয়ার, ইউনাইটেড এয়ার, বিমান বাংলাদেশ, রিজেন্ট এয়ার বিমান সমূহ বিভিন্ন সময়ে সিলেটের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন। বিমানগুলোর ক্লাস অনুসারে জনপ্রতি ভাড়া ও ভিন্ন হয়ে থাকে। তবে সাধারণত 3 হাজার টাকা থেকে 10 হাজার টাকা মধ্যে হয়ে যাবে।

চট্টগ্রাম থেকে সিলেটে যাবার উপায়

তাছাড়া বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য স্থান চট্টগ্রাম হতে যাওয়া যায়। চট্টগ্রামের জেলা শহর থেকে এনা পরিবহন, গ্রীন লাইন, সৌদিয়া বাস পাওয়া যায়। এসি বাস এবং নন এসি বাসের উপর ভিত্তি করে ভাড়া 500 টাকা থেকে 2000 টাকা হয়ে থাকে। তাছাড়া চট্টগ্রাম থেকে ট্রেন যোগেও চায়ের দেশ সিলেট এ যেতে পারবেন। এজন্য চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে উদয়ন এক্সপ্রেস এবং পাহাড়িকা ট্রেনে যেতে পারবেন। তবে ট্রেনের সিডিউল জানা খুবই জরুরী কেননা, সপ্তাহে মাত্র 6 দিন চলাচল করে। ট্রেনের ভাড়া আসন বোয়ালিটি অনুযায়ী 100 টাকা থেকে 1000 টাকা হবে।

কিভাবে সিলেট থেকে জাফলং যাওয়া যায়?

ঢাকা অথবা চট্টগ্রাম থেকে সিলেটে আসার পর বিভিন্ন উপায়ে জাফলং এ আসা যায়। সিলেটের শিবগঞ্জে থেকে লোকাল বাসে মাত্র 80 টাকা ভাড়া দিয়ে জাফলং এ যেতে পারবেন। অটোরিকশায় বা সিএনজি যোগে মাত্র 1000 টাকা থেকে 2000 টাকা ভাড়া দিয়ে যেতে পারবেন। কয়েকজন মিলে একটি মাইক্রোবাস 3000 টাকা থেকে 5000 টাকা দিয়ে রিজার্ভ নিয়ে জাফলং যেতে পারবেন। সিলেটের যে কোন স্ট্যান্ড থেকে এই সিএনজি অথবা অটোরিক্সা যোগে জাফলং এ যাওয়া যায়। তবে সিএনজি, অটোরিকশা ও মাইক্রোবাস ভাড়া নেওয়ার সময় ভালো করে দরদাম করে নিতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

Sharing is caring!

shares