Sharing is caring!

গারো পাহাড় ও গোপালপুর সীমান্ত, দুর্গাপুর, নেত্রকোনা

আঁকাবাকা পথ ঘন সবুজ গারোপাহাড় ছোট ছোট টিলা আর নদী দ্বারা বেষ্টীত প্রাচুর্য্ময় জনপদ নেত্রকোণার দূর্গাপুর ।
অনেক দূর থেকে তাকালে মনে হয় যেন ঘন কালো মেঘ আকাশ আর মাটির সাথে মিশে আছে সেই কবে থেকে মিতালি করার জন্য।

মেঘালয় সিমান্তের কোল ঘেসে দারিয়ে প্রাচিন জনপদেরে এক অনন্য নিদর্শন এখানে রয়েছে ক্ষুদ্র –নৃ- গোষ্ঠির বিচিত্র রকমের জিবনধারা যা প্রকৃতির এক অপার হাতছানি । আমাদের ব্যস্ত ও কোলাহোল পূর্ন জীবন থেকে হারিয়ে নিঝুম শান্ত এই পকৃতির সাথে মিশে যাওয়ার এ – এক অনন্য উৎকৃষ্ট জায়গায় গারো পাহাড় ও এর আশেপাশের এলাকা।

tour Garo Hill

গারোপাহারের অবস্থান : গারোপাহাড় অবস্থিত ভারতের মেঘালয় রাজ্যের গারো ও খাসিয়া পর্বত মালার একটি অংশ । এই পর্বত মালার কিছুটা অংশ ভারতের আসাম রাজ্য ও বাংলাদেশের শেরপুরের নালিতা বাড়ি উপজেলায় অবস্থিত ।

এছাড়াও বৃহত্তর ময়মনসিংহ ও সুনামগঞ্জে ও আছে এর কিছুটা অংশ নেত্রকোনা জেলার দূর্গাপুরের সমস্ত উত্তর দিকটা জুরেই রয়েছে গারোপাহাড় । ঐ সব পাহাড়ের অধিকাংখশ অবস্থানই ভারতের সিমানাই অবস্থিত । আর বাংলাদেশের সিমানাই রয়েছে ছোট , বড় , অসংখ্য পাহাড়ি টিলা ।

Garo Hills

এসব টিলায় চরে দেখা যায় বিরাট বিরাট পাহাড় কিছু কিছু পাহাড় গরিয়ে নিচের দিকে নেমে এসেছে ঝর্নার মতো স্বচ্ছ জলধারা । এই জলধারার জলই স্থানিয় জনগোষ্ঠির জলের চাহিদা মেটাতে সক্ষম ।

পাহাড় দেখার সুবিধা জনক স্থান :
• রানিখং
• ভবানিপুর
• আরাপুর
• গোপালপুর
• কালিকাপুর

বিভিন্ন উপজাতির বাস :
দূর্গাপুরের বিড়িসিরি ও সদর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের আদিবাসি যেমন –
1. গারো
2. কৌজ
3. হাজং
4. ও বানায় প্রভৃতির আদিবাসির বসবাস ।

আদিবাসিদের জিবনধারা : বিভিন্ন উপজাতি আদিবাসিদের বাড়ি সমতলে আবার কারো বাড়ি টিলার উপর । গারোপাহাড়ের বিরুপ প্রকৃতির সাথে যুদ্ধ সংগ্রাম করে এদের বসবাস । যেমনঃ

I. গ্রামে গারো পরিবারের বাড়িতে ঢুকলে দেখা যায় গারো নারিরা ঘরে নেই তারা গ্রামের জঙ্গলে ঢুকে লাকড়ি সংগ্রহ করছে ।
II. কেউবা কাধে সন্তান ঝুলিয়ে মাঠে কাজ করছে ।
III. গারো সমাজ কাঠামোতে রয়েছে নারি স্বাতন্ত্র বৈশিষ্ঠ মাতৃতান্ত্রিক সমাজ ।
IV. ঘর ,গৃহস্থলি , কয়লা ও পাথর উত্তোলন সহ পরিবার পরিচালনা সব ক্ষেত্রেই নারির একচ্ছত্র ভূমিকা পালন করে থাকেন ।

Garo Mountain foothill

দর্শনিয় স্থান : পাহাড়ি টিলার সর্ব উপরে রয়েছে খ্রীষ্টধর্মালম্বিদের তীর্থ স্থান রানিখং মিশন । এই মিশনের খুব কাছেই রয়েছে হাজংমাতার রাসমনির স্মৃতিসৌধ । গারোপাহাড় বেয়ে ঝর্নার মতো নেমে আসা সমিশ্বরি নদী বর্ষায় রাক্ষসি রুপ নেয় ভাসিয়ে দেয় বির্স্তিন জনপদ ।

ভরা মৌসুমে নদীর বুক জুরে থাকে বিশাল জলরাশি গারো পাহাড়ের এসব দৃশ্য পরিচয় করে দেয় বৈচিত্র ময় এক জিবন ধারার ।তাই চলুন এই কর্মব্যস্ততার মাঝে একটু সময় বের করে ঘুরে আসা যাক সৌন্দের্য্র অপর লিলা ভূমি গারো পাহাড়ে ।

বন্ধুরা এরকম দেশের দর্শনীয় ও পর্যটক আর্কষণীয় স্থান সম্পর্কে জানতে আমাদের Study Based সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন। আপনাদের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।

এই আর্কষণীয় স্থানটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে তা নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিন।

আমাদের দেশের আরো দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জানুন নিচের পোস্ট থেকে।

মহাস্থানগড় ও তার আদি ইতিহাস

https://www.studybased.com/history-of-mahasthangarh-and-tourist-place/

1 Comment

  1. Smoth Hidar

    It is your very important tourist information. thanks for good post

    Reply

Submit a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Sharing is caring!

shares